দুর্নীতি দমন কমিশন ( দুদক) সম্পর্কে কিছু কথা

দুদকের প্রারম্ভিক বেসিক কিছু কথা বলে নিচ্ছি।

দুর্নীতি দমন কমিশন ( দুদক)  ইংরেজিতে যাকে anti-corruption কমিশন হিসেবে অভিহিত করা হয়।   2004 সালে প্রতিষ্ঠিত হয় এই দুদক।  দুদকের আটটি বিভাগের বিভাগীয় অফিস এবং জেলা সমন্বিত রয়েছে এবং 36 টি জেলার মধ্যে এই দুদকের অফিস বিস্তৃত রয়েছে।  কাজ হচ্ছে,  সাদামাটাভাবে যদি বলি যত দুর্নীতি রয়েছে, বিশেষত কিছু কিছু ক্ষেত্রে, অত্যন্ত বেশি ভাবে যেমনঃ  সরকারের বিভিন্ন মেগা প্রজেক্ট, নির্মাণাধীন কোন কিছু, ভূমিসংক্রান্ত অথবা সরকারি কর্মকর্তাদের বিপরীতে তারা কি ট্যাক্স দিচ্ছে সরকারকে??  নাকি এর মধ্যে তারা কমিয়ে দিচ্ছে বা আরো কিছু রয়েছে??

দুদক হচ্ছে সেই জব যে জব করলে আপনার সম্পর্ক থাকবে অধিকাংশই সমাজের হাইপ্রোফাইল,  সমাজের অভিজাত মানুষদের সাথে।  আমরা সরকারি অনেক ক্ষেত্রেই দেখি যে বিভিন্ন অভিজাত মানুষদেরকে সরকারি কর্মকর্তাদের তেল মারতে হয়, বিভিন্ন জায়গায় তাদের প্রশংসা করতে হয়, এক কথায় তাদের তোষামোদ করতে হয় কিন্তু তোদের ক্ষেত্রে একটু ডিফারেন্ট অভিজাত মানুষগুলো উল্টো উল্টো দুদকের মানুষদের সাথে সুসম্পর্ক বজায় রেখে চলে।  কারণ সবারই তো দুর্বলতা রয়েছে, অভিজাত মানুষদের টাকা রয়েছে সবকিছু মিলেই মানুষদেরকে তারা অনেক বেশি ভয় করে, এখানে তাদেরকে তেল মারতে হয় না বরং দুদকের কর্মকর্তাদের তেল মারে।

Leave a Comment

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Shopping Cart